আইপিও ( IPO )কি?

0
226
আইপিও ( IPO )কি কিভাবে আইপিও’তে শেয়ার পেতে আবেদন করতে হয়

আইপিও ( IPO )কি কিভাবে আইপিও’তে শেয়ার পেতে আবেদন করতে হয়

Initial Public Offering এর সংক্ষিপ্ত রুপকে আইপিও বলা হয়। আইপিও কে প্রাইমারি মার্কেটও বলা হয়। বিনিয়োগ ইচ্ছুক সাধারন মানুষদের কাছ থেকে টাকা উত্তালন করার নামই আইপিও।

আমাদের দেশে সাধারনত আইপিও কে রিক্স ফ্রী বিনিয়োগ হিসাবে বিবেচনা করা হয়। সাধারনত যখন কোন ব্যবসা শুরু করা হয় তখন নিজের পুঁজি বা ব্যাংক লোন নিয়ে ব্যবসা শুরু করা হয়। পরবর্তিতে যখন ব্যবসা প্রসার কারার প্রয়োজন হয় তখন ব্যাংক থেকে লোন না নিয়ে সাধারন বিনিয়োগকারীদের কাছে কোম্পানির কিছু অংশ বিক্রি করে দেওয়া হয় এবং এই বিক্রিরির পদ্ধতির নামই আইপিও।

আমাদের দেশে তরুন সমাজের মধ্যে আইপিও তে বিনিয়োগ করার প্রবনতা অনেক বেশী। তার কারন হলো আইপিওতে রিস্ক এর পরিমান প্রায় জিরো।

একটি বিও অ্যাকাউন্ট এর অধীনে একটি আইপিওতে আবেদন করা যায়। যারা যারা আইপিওতে বিনিয়োগ করবে তাদের মধ্যে লটারির মাধ্যেমে বিনিয়োগকারীর টাকা গ্রহন করা হয়। কারন একটা কোম্পানি যত টাকার শেয়ার বাজারে ছাড়ে তার থেকে আইপিওতে আবেদন বেশী পড়ে। আইপিও’র মাধ্যমে শেয়ার ক্রয় করতে চাইলে নির্ধারিত সময়ে ব্রকার হাউজে টাকা জমা দিতে হবে।

টাকা জমা দেওয়ার ২০/২১ দিনের মধ্যে সাধারনত লটারির ড্র করা হয়। আপনি যদি লটারিতে জিতেন তাহলে আপনার টাকা গ্রহন করা হবে আর লটারিতে না জিতলে টাকা ফেরত দিয়ে দেওয়া হবে। অতীতে যে সকল বিনিয়োগকারী আইপিও’র মাধ্যমে শেয়ার পেয়েছেন তারা তাদের বিনিয়োগের উপর প্রচুর লাভ করেছে।

কিভাবে আইপিও’তে শেয়ার পেতে আবেদন করতে হয়

টাকা উত্তালন করার অন্যতম প্রাচীন পদ্ধতি আইপিও। যখন কোন কোম্পানি তাদের কিছু অংশ শেয়ার বিক্রি করে মূলধন বাড়ায়, বা অন্য কোন প্রয়োজনীয় কাজ করে, সেই প্রক্রিয়াকেই মূলত আইপিও বলে। অর্থাৎ সাধারন বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে কোন নিদিষ্ট কোম্পানির নামে টাকা উত্তোলন করা আইপিও।

আইপিও’তে শেয়ার আবেদন করতে হলে অবশ্যই বি ও অ্যাকাউন্ট লাগবে। একটি বিও অ্যাকাউন্ট এর বিপরীতে একটা আবেদন করা যায়। বিও অ্যাকাউন্ট ব্রকার হাউস খুলে দেয়। যখন কোন কোম্পানি আইপিও’র মাধ্যমে টাকা উত্তলোন শুরু করে তখন আপনার যেই ব্রকার হাউজে বিও অ্যাকাউন্ট খোলা হয়েছে সেখানে আবেদন করতে হবে। বর্তমানে অনেক ব্রকার হাউজে অনলাইন পদ্ধতি চালু হয়েছে। আপনি দেশ বা বিদেশ থেকে সহজেই আইপিও’তে আবেদন করতে পারবেন।

আইপিও’তে আবেদন করার ২০ থেকে ২১ দিনের মধ্যে লটারি করা হয়। আপনি চাইলে লটারির ড্র সরাসরি দেখতে পারবেন। ড্র করার ২ থেকে ৩ ঘন্টার পর ব্রকার হাউজ বা অনলাইনে রেজাল্ট দেখতে পারবেন।

আইপিও’তে আবেদন করে শেয়ার না পেলে আপনার টাকা বিও অ্যাকাউন্ট আসতে ২/৩ দিন সময় লাগবে। টাকা বিও অ্যাকাউন্টে চলে আসলে সেই টাকা পুনরায় আইপিও’তে অথবা সেকেন্ডারি মার্কেটে বিনিয়োগ করতে পারবেন।

আইপিও’তে আবেদন করে শেয়ার পেলে আপনার টাকা কোম্পানি পাবে এবং একটা নিদিষ্ট সময়ের মধ্যে লেনদেন শুরু হবে।

এরকম আরো লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাক্টিভ থাকুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here