ব্যবসা শুরু করার কিছু গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ সমূহ

0
297
সফল ভাবে ব্যবসা শুরু করার কিছু গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ সমূহ

সফল ভাবে ব্যবসা শুরু করার কিছু গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ সমূহ

আপনি ব্যবসা শুরু করতে চান? নিজে নিজের বস হতে চান? প্রথমে আপনাকে ব্যবসা করার জন্য বিজনেস আইডিয়া বা ব্যবসার সঠিক ধরনা এবং পরিকল্পনা ঠিক করতে হবে। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই বিভিন্ন পদক্ষেপের উপরই একটি ব্যবসার সফলতা বা ব্যর্থ্যতা নির্ভর করে। পুরু প্রক্রিয়াটি চালানোর জন্য এবং সফল ব্যবসা শুরু করার জন্য আমরা আপনাকে আমরা কয়েকটি পরামর্শ বা ধারণা দেব যাতে সহজেই আপনি সফল ভাবে ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

মানুষ কি ক্রয় করতে চায় তা প্রদান করুন, আপনি যা বিক্রি করতে চান তা নয়।

প্রায়শই একজন উদ্যোক্তা ব্যবসায় সফলতা আনার জন্য একটি নির্দিষ্ট পন্য বা সেবার বিপনন করতে চায়। কিন্তু বস্তবতা হচ্ছে, মানুষ তার পন্য গুলো কতটুকু গ্রহন করবে তার উপরই ব্যবসার সফলতা নির্ভর করে। উদাহরণস্বরুপ, আপনি সাধারণ জুতা তৈরির পরিবর্তে সাম্প্রতিক ফ্যাশন প্রবণতা সমৃদ্ধ ডিজাইন ও উন্নত উপকরণের সংমিশ্রণে খেলাধুলার জুতা তৈরি করলে তা অনেক বেশি জনপ্রিয়তা পেতে পারে। আপনি আপনার ব্যবসা দৃষ্টিকোনকে আরও প্রখর করতে পারেন এবং পন্যে গুনগত নকশা আরোপ করে ব্যবসায় নতুনত্ব আনতে পারেন। আর আপনার তৈরীকৃত পন্য গুলো আপনি বিভিন্ন জায়গায় বিক্রি করতে পারেন। এতে ব্যবসায় সঠিক আয়ের পথ নির্ধারিত হবে।

নগদ প্রবাহ

নগদ প্রবাহ হচ্ছে একটি ব্যবসার জীবনচক্র এবং ব্যবসায় মুনাফা অর্জনের জন্য এটি অপরিহার্য। তাই নগদ অর্থ প্রবাহের জন্য আপনাকে কিছু উপায় খুজেঁ বের করতে হবে। আপনি এটা কি করে করবেন তা আপনাকেই ঠিক করতে হবে। যে কোন পেশাগত ব্যবসায় উদ্যোক্তারা চাইলে আমানতের ব্যবস্থাও করতে পারেন। তাছাড়া আপনি আপনার ব্যবসার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনায় ঝুঁকি এড়ানোর জন্য বীমার ব্যবস্থাও করতে পারেন।

সর্বদা খরচ কমানোর জন্য নতুন উপায় খুঁজুন

খরচ কম রাখতে সব সময় আপনাকে নতুন উপায় সমূহ সন্ধান করতে হবে। বিশে^র সকল নগদ প্রবাহ গুলো ইতিবাচক হয় যদি নগদ প্রবাহ গুলো মূল্যহীন না হয়। আপনাকে অবশ্যই খরচের চেয়ে আয়ের প্রতি বেশি মনোনিবেশ করতে হবে। অর্থাৎ এক্ষেত্রে আপনাকে মিতব্যয়ী হতে হবে। যেমন আপনি আপনার ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান প্রস্তুতের জন্য পুরোনো অফিস  বা দোকানের পুরোনো মালামাল গুলো সংগ্রহ করতে পারেন। তাছাড়া আপনি আপনার পন্য উৎপাদনের ক্ষেত্রে সৃজনশীল দক্ষতাকেও কাজে লাগিয়ে খরচ কমানোর ব্যবস্থা করতে পারেন। আপনি এমন কাউকে খুঁেজ বের করুন যারা তাদের ব্যবসায় অতিরিক্ত কাজ করে এবং গবেষনা করে স্বল্প ব্যয়ে অধিক আয় করেছেন।

বিক্রয় বা বিপননের উপর মনোযোগী হউন

ব্যবসার আসল কাজ হচ্ছে পন্য গুলো  বিক্রি করা। আপনাকে এমন সব সূত্র বের করতে হবে যাতে আপনি সহজেই আপনার কাঙ্খিত পন্য বিক্রয় করতে পারেন এবং আপনার গ্রাহকদের কাছে তা বেশি জনপ্রিয়তা লাভ করে। অনেক উদ্যোক্তারা তাদের পন্য গুলো বিপণন করার আগে তা কতটা ভোক্তা জোগাতে পারবে তার হিসেব করে নেয়। আপনি চাইলে এই রকম একটি উপায় অনুসরণ করতে পারেন। তাতে আপনি খুব শীঘ্রই আবিস্কার করতে পারবেন কি করে ব্যবসায় পন্য বিপননের মাধ্যমে সফল হওয়া যায়।

মুনাফা লাভের উপায় গুলো খুঁজুন

ব্যবসায় কিছু প্রভাবক রয়েছে যা আপনার ব্যবসাকে প্রভাবিত করে। আপনি সেই সব প্রভাবক গুলো অনুসরণ করে ব্যবসায় সফলতা আনতে পারেন। আপনার নিয়মিত গ্রাহকদের কাছ থেকেও আপনি আরও গ্রাহক বৃদ্ধির আশা করতে পারেন। আর এই ভাবেই আপনার গ্রাহকের পরিমাণ বৃদ্ধি করে আপনার পন্যের বিয়ে বাড়াতে পারেন।

সবকিছু পরীক্ষা এবং পরিমাপ করুন

আপনি যদি কোন কিছু পরিমাপ না করেন তাহলে আপনি তা কখনোই পরিবর্তন করতে পারবেন না। আপনি যদি বিশ্বত ভাবে পরীক্ষা না করেন তাহলে আপনি আপনার কার্যক্রম বা কৌশল গুলো সঠিক ভাবে কাজ করছে কিনা তা বুজতে পারবেন না। তাই আপনার সকল কার্যক্রম বা কৌশলের ফলাফল গুলো পরিমাপ করা বা নজরদারিতে রাখা প্রয়োজন। এক্ষেত্রে একজন ডাক্তার আপনার জন্য অনুকরণীয় হতে পারে। ডাক্তাররাা যেভাবে একজন রোগীর উপর পরীক্ষা চালিয়ে রোগ নির্ণয় করে ঠিক তেমনি আপনাকেও আপনার যাবতীয় পন্যগুলোর উপরও পরীক্ষা চালাতে হবে।

আরও বেশি উপার্জন করার উপায় শিখুন

আপনি যদি কখনও মিলিয়ন ডলারের ব্যবসা চালাতে না পারেন তাহলে আপনি কিভাবে ব্যবসা শুরু করবেন সে সম্পর্কে আপনার কোন ধারণা থাকার কথা না। যাই হোক আপনাকে শিখতে হবে কি করে একটি সহজ উপায়ে ব্যবসায় উপার্জন বাড়াতে হয়। ব্যবসার পন্য বিক্র , মার্কেটিং এবং অন্যান্য কার্যকলাপ সম্পর্কে আপনাকে জ্ঞান অর্জন করতে হবে। আপনাকে এমন সব কৌশল অবলম্বন করতে হবে যেখান খেকে আপনি সহজেই ব্যবসার উপার্জন সম্পর্কে বাস্তবতার নিরিখে পরামর্শ নিতে পারবেন। আপনি চাইলে আপনার ব্যবসার অংশিদারের সাথেও এই নিয়ে কথা বলতে পারেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here