স্কুল ছাএ ছাএীদের জন্য কম পুঁজিতে ১০টি ব্যবসা আইডিয়া

0
384
স্কুল ছাএ ছাএীদের জন্য কম পুঁজিতে ১০টি ব্যবসা আইডিয়া

স্কুল ছাএ ছাএীদের জন্য কম পুঁজিতে ১০টি ব্যবসা আইডিয়া

প্রাপ্ত বয়স্করাও তাদের কর্মের ক্ষেত্রে স্কুল ছাএ ছাএীদের কাছ থেকে সাহায্য পেতে পারে। তাই ওদেরকে অবহেলা করা ঠিক নয়। কেননা ছোট ছোট স্কুল ছাএ ছাএীদের দ্বারাও একটি ব্যবসা শুরু করা সম্ভব। স্কুল ছাএ ছাএী উদ্যোক্তারা যদি খুব ছোট বেলা থেকে ব্যবসার উদ্যোগ গ্রহণ করতে চান তাহলে ভবিষ্যতে তাদের আর কাজ করতে সমস্যায় পরতে হবে না। তাছাড়া কম বয়সেই আয় শুরু করে পরিবারকে সহযোগিতা করতে পারে। অল্প বয়সে বাচ্চাদের নিজের ব্যবসা শুরু করার জন্য প্রচুর সুযোগ  রয়েছে। এখানে আমরা ছোট বাচ্চাদের জন্য কয়েকটি ব্যবসার ধারণা নিয়ে এসেছি যা তারা তাদের অনুসরণের তালিকায় রাখতে পারে।

স্কুল ছাএ ছাএীদের ছোট ব্যবসা শুরু করার জন্য ১০টি ব্যবসা আইডিয়া 

উদ্ভাবক

বাচ্চারা নতুন নতুন পন্যের উদ্ভাবক হিসেবেও কাজ করতে পারে। তারা যদি সৃজনশীলতায় দক্ষ হয়ে থাকে তাহলে তারা বিভিন্ন পন্যের গুনগত মান পরিবর্তন করেও ব্যবসা শুরু করতে পারে। তাছাড়া তারা বিভিন্ন রকমের পন্য উৎপাদন, যেমন গিফট কাড বানিয়ে তা বিভিন্ন মার্কেট প্লেসে বিক্রি করতে পারে। অথবা তারা তাদের ব্যবসা আইডিয়া গুলোও অন্যদের সাথে ভাগ করতে পারে।

রুটি এবং কেক

বাচ্চারা তাদের ব্যবসায়িক দৃষ্টি রুটি জাতীয় পন্যের উপরও ফেলতে পারে। বাবা মার সহযোগতিায় বিভিন্ন বেকর্ড পন্য যেমন রুটি বা কেক তৈরী করতে পারে এবং সেই খাবার গুলো বিভিন্ন দোকানে বিক্রি করতে পারে। অথবা পরিবারের কোন প্রোগ্রাম গুলোতে অতিথিসেবক হিসাবে কাজ করে একটি ব্যবসা শুরু কররে পারে।

বাচ্চাদের বই লেখক

আপনি যদি একজন পেশাদার লেখক না হয়ে থাকেন তাহলেও আপনি বাচ্চাদের জন্য বিভিন্ন বই লিখতে পারেন। এই ক্ষেত্রে আপনার বাচ্চারা যদি চিত্রাঙ্কন করতে পারে তবে আপনি আপনার বইয়ে তাদের অঙ্কিত চিত্র গুলো সংযোজন করতে পারেন। তাতে আপনার বইটি আরো বেশি আর্কষণীয় হতে পারে। তারপর একটি প্রকাশনা সেন্টার খোঁজে বই প্রকাশ করতে পারেন। তাছাড়া আপনি অনলাইনেও বই প্রকাশনা করতে পারেন। 

গহনা ডিজাইন

বাচ্চাদের নরম মস্তিস্কে অনেক সূক্ষ প্রতিভা রয়েছে। যে কোন বাচ্চাই চাইলে সেই প্রতিভাকে কাজে লাগাতে পারে। কিছু উপকরণ ক্রয় করে তাথেকে গহনা বানিয়ে অনলাইনে বিক্রি করে এই ব্যবসাটি শুরু করা যেতে পারে।

পোশাক ডিজাইন

 আপার যদি একটি বাচ্চা থাকে আর সে যদি ফ্যাশন সচতেন হয়ে থাকে তাহলে আপনি আপনার বাচ্চার সহযোগীতায় একটি পোশাক wডজাইন ব্যবসা শুরু করতে পারনে। আপনি গ্রাহকদের চাহদিা অনুযায়ী পোশাকে বিভিন্ন ডিজাইন করে তা বিভিন্ন মার্কেট প্লেসে বিক্রি করতে পারেন। অথবা আপনি আপনার নকশা করা পোশাক অনলাইনের বিভিন্ন সাইটেও বিক্রি করতে পারেন। সহজ ব্যবসার আইডিয়া যেখানে কোন কিছু বিক্রি করতে হয় না, পড়ুন এইখানে 

ব্লগার

ব্লগিং যে কোন বয়সের মানুষরে জন্য একটি কাযকর ব্যবসার সুযোগ হতে পারে। এমন অনেক বাচ্চা রয়েছে যারা ছোট বেলা থেকেই যে কোন বিষয় সম্পর্কে লিখার অভিক্ষতা রয়েছে। তারা সেই অভিক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে ব্লগার শুরু করতে পারে।  পরিবারের সদ্যসদের নিয়ে ১১টি পারিবারিক ব্যবসার ধারণা

 ইউটিউব ভিডিও বানিয়ে ইনকাম

অথবা আপনি যদি কারগিরি জ্ঞান থাকে তাহলে আপনি একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলতে পারেন। সেখানে আপনি বিভিন্ন করনের শিশুকোষ ভিডিও গুলো আপলোড করে অর্থ উপার্জনের পথ সুগম করতে পারেন।

সুরকার বা জাদুকর

 সঙ্গতি ভালবাসে এমন বাচ্চারা বিভিন্ন ইভেন্ট বা অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরবিশেন করে একটি ব্যবসা শুরু করতে পারে। অনুরূপভাবে, যদি যাদু সম্পর্কে অভজ্ঞি হয়ে থাকে তাহলে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে  জাদুকরী দক্ষতা প্রদান করে একটি ব্যবসা শুরু করতে পারে।  এটি একটি বিনোদন মূলক ব্যবসার ধারণা হতে পারে।

বই বিক্রেতা

যাদের নিকট বইয়ের একটি বড় সংগ্রহ রয়েছে এমন বাচ্চারা একটি বই বিক্রির ব্যবসা শুরু করতে পারে। বই গুলো অনলাইনের বুকস্টোরে বিক্রি করার ব্যবস্থা করা যেতে পারে। এইরকম একটি সাইট হচ্ছে অ্যামাজন।

আর এই ভাবেই উপরের ধারণা গুলো অনুসরণ করে বাচ্চারাও একটি সফল ব্যবসা দাঁড় করাতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here