হাতের কাজ জানা থাকলে যে ৯টি ব্যবসা আপনি শুরু করতে পারেন

0
319

হাতের কাজ জানা থাকলে যে ৯টি ব্যবসা আপনি শুরু করতে পারেন

সব মানুষ কখনোই একই প্রতিভা নিয়ে জন্মায় না। সবাই ভিন্ন ভিন্ন প্রতিভা বা দক্ষতা নিয়ে এই পৃথিবীতে এসেছে। আপনার যদি কোন শৈল্পিক বা নৈপুণ্যের দক্ষতা থাকে তাহলে আপনি এমন একটি ব্যবসা স্থাপন করতে পারেন যেখানে আপনি আপনার নিজস্ব প্রতিভার প্রমান দিতে পারবেন। বর্তমানে আপনার কারুশিল্পের দক্ষতা প্রমাণে বিভিন্ন উপায়ে বিভিন্ন ধরনের ব্যবসা শুরুর সুযোগ রয়েছে। তাই আজকে আমারা হাতের কাজ জানা থাকলে যে ৯টি ব্যবসা আপনি শুরু করতে পারেন তা নিয়ে আলোচনা করব।

গহনা ডিজাইন

বর্তমানে বিভিন্ন ধরনের গহনা রয়েছে যা আপনি ডিজাইন ও নিজের হাতে তৈরি করতে পারেন। আপনি বিভিন্ন ধাতব টুকরো দ্বারা হরেক রকমের ব্রেসলাইট তৈরী থেকে শুরু করে অন্যান্য উপকরণ দ্বারা বিভিন্ন গহনা তৈরি করতে পারেন। আর আপনি আপনার পন্য বিক্রির জন্য অনলাইনে খুচরো বিক্রেতাদের খোঁজ নিতে পারেন। তাছাড়া বড় বড় পাইকারী বিক্রেতাদের কাছেও আপনার পন্য বিক্রি করতে পারেন। ব্যবসায়ের সুনাম বাড়াতে হলে আপনাকে নতুন নতুন ডিজাইনের গহনা তৈরী করতে হবে এবং ধীরে ধীরে সরবরাহ বাড়াতে হবে। সৃজনশীল ও শৈল্পিক দক্ষতা সম্পন্ন উদ্যোক্তারা সহজেই এই ব্যবসাটি শুরু করতে পারেন।

খেলনা তৈরি

বাচ্চাদের প্রতি যদি আপনার আলাদা সহানুভূতি থাকে তাহলে আপনি এমন একটি ব্যবসা শুরু করতে পারেন যার মাধ্যমে আপনি বাচ্চাদের পছন্দের জিনিস গুলো সরবরাহ করতে পারবেন। যেমন- খেলনা। আপনি বিভিন্ন উপকরণ দিয়ে বাচ্চাদের জন্য বিভিন্ন ধরনের খেলনা তৈরি করে এই ব্যবসাটি নির্বাহ করতে পারেন। সৃজনশীল উদ্যোক্তারা সহজেই নতুন নতুন খেলনা তৈরি করে এই ব্যবসায় সফল হতে পারে।

ফটোগ্রাফার

আপনি যদি ব্যক্তিগত ভাবে একজন দক্ষ ফটোগ্রাফার হয়ে থাকেন তাহলে আপনি বিভিন্ন ধরনের ফটো মুদ্রণ করেও একটি ব্যবসা শুরু করতে পারেন। তবে এক্ষেত্রে ফটো ইডিটিং এর সময় অবশ্যই আপনার সৃজনশীল দক্ষতাকে সু-নিপুণ ভাবে ফুটিয়ে তুলতে হবে।

পোশাক বা টি-শার্ট ডিজাইন

বর্তমানে অনেকেই তাদের পোশাকে হাতের তৈরী ডিজাইন বেশি পছন্দ করে। তাই আপনি বিভিন্ন পোশাকে হাতে ডিজাইন করতে পারেন। আপনার ডিজাইন করা পোশাক গুলো বিভিন্ন বুটিকস হাউজে বিক্রি করে প্রচুর অর্থ আয় করতে পারেন। আপনি চাইলে অনলাইনেও তা বিক্রি করতে পারেন। মানসম্মত উপায়ে পোশাক ডিজাইন করতে পারলে আপনার সুনাম বৃদ্ধি পেতে পারে। ঠিক তেমনি আপনি বিভিন্ন প্রকার টি-শার্টে হরেক রকমের নকশা মুদ্রণ করেও আপনার শৈল্পিক দক্ষতা ফুটিয়ে তুলতে পারেন।

চিত্রকর

আপনি যদি বিভিন্ন ছবি অঙ্কনে পারদর্শী হয়ে থাকেন তাহলে আপনি একজন চিত্রকর হিসেবে আপনার নিজের ব্যবসা শুরু করতে পারেন। সেখানে আপনি আপনার নিজস্ব প্রতিভা দিয়ে আপনার ক্যানভাসকে সাজাতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনাকে চিত্র অঙ্কনের বিভিন্ন সরঞ্জাম সংগ্রহ করতে হবে। যেমন- কাঠ, রং ও চিত্র অঙ্কনের অন্যান্য যাবতীয় মালামাল ইত্যাদি। আপনি যদি আপনার মনের মাধুরী দিয়ে সৃজনশীল চিত্র অঙ্কন করতে পারেন তাহলে আপনি এই মার্কেটে অনেক সুনাম অর্জন করতে পারবেন।

মোমবাতি ও সাবান প্রস্তুত

মোমবাতি জনপ্রিয় উপহার সমাগ্রী গুলোর মধ্যে অন্যতম। আপনি চাইলে মোমবাতি তৈরী করেও একটি নৈপুণ্য ব্যবসা শুরু করতে পারেন। আপনি বিভিন্ন ধরনের মোমবাতি তৈরি করে তা স্থানীয় উপহার সামগ্রীর দোকান বা মুদি দোকানে বিক্রি করতে পারেন। তাছাড়া আপনি অনলাইনেও আপনার তৈরি মোমবাতি গুলো বিক্রি করতে পারবেন। অনুরূপ ভাবে,  আপনার যদি সাবান প্রস্তুতের প্রক্রিয়া গুলো জানা থাকে তাহলে আপনি নানান নকশার সাবান তৈরি করেও একটি ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

হাত ব্যাগ ডিজাইন

আপনি হাত ব্যাগ প্রস্তুত বা ডিজাইনকে কন্দ্র করে একটি ব্যবসা শুরু করতে পারেন। বর্তমানে বেশির ভাগ মহিলাই হস্তনির্মিত হাত ব্যাগ ব্যবহারে আগ্রহী। তাই আপনি এই সব মহিলাদেরকে টার্গেট করে নান্দনিক হাত ব্যাগ ডিজাইন ও তৈরি করে এই ব্যবসাটি পরিচালনা করতে পারেন।

হস্তনির্মিত উপহার সামগ্রী

এমন অনেকেই রয়েছেন যারা তাদের প্রিয়জনদের উপহার প্রদান করার ক্ষেত্রে হাতের তৈরী পন্যের দিকে বেশি নজর দেয়। আপনি তাদের লক্ষ্য করে একটি সফল ব্যবসা শুরু করতে পারেন। আর তার জন্য আপনাকে একটি দোকান খুলতে হবে এবং সেখানে হস্তনির্মিত বিভিন্ন উপহার সামগ্রী নকশা ও তৈরী করে তা গ্রাহকদের কাছে বিক্রি করতে পারেন। তবে এক্ষেত্রে আপনার নকশা গুলো অবশ্যই আর্কষণীয় হতে হবে।

টেইলার

আপনি যদি সেলাই করতে ভালবাসেন তবে আপনি আপনার নৈপুণ্যকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন নকশার পোশাক তৈরি করতে পারেন। এক্ষেত্রে আপনার তৈরি করা পোশাক গুলো গ্রাহকদের নিকট বিক্রি করে প্রচুর টাকা আয়ের সুযোগ রয়েছে। এটি একটি সহজ ব্যবসার ধারণা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here